সর্বশেষ :
Thu, 21 Sep, 2017

 
সড়ক সতর্ক নির্দেশনার অভাব না’গঞ্জ জেলার দূর্ঘটনাপ্রবণ এলাকা ২১ নেই ট্রমা সেন্টার ও ফুটওভারব্রীজ
Sunday, 12 October 2014 23:47

altস্টাফ করেসপন্ডেন্ট এনগঞ্জ২৪ ডটকমঃ পৃথিবীর যে সব দেশে সড়ককে নিরাপদ রাখার জন্য কোন আচরন বিধি নেই, বাংলাদেশ তার মধ্যে অন্যতম। ফলে সড়ক দূর্ঘটনায় হতাহতের সংখ্যা দিন দিন বেড়ে মানুষের জীবনকে ঝুঁকিপূর্ণ করে এক নিরাপদহীনতার চাদরে মুড়ে রেখেছে। এর প্রতিফলন রয়েছে দেশের অন্যান্য স্থানের ন্যায় নারায়ণগঞ্জ জেলায়ও। এ জেলার সড়ক ও মহাসড়ক ব্যবস্থাপনায় নেই সুষ্ঠু ট্রাফিক ব্যবস্থা আর এজন্য কোন স্বল্প মেয়াদী ও দীর্ঘ মেয়াদী পরিকল্পনার ঘাটতি রয়েছে বলে একটি সূত্রে জানা গেছে। ফলে এ জেলায় হতাহতের সংখ্যা সড়ক দূর্ঘটনায় অবনতিশীল পর্যায়ে রয়েছে। যা দিন দিন মানুষের উদ্বেগ আর উৎকণ্ঠার মূখ্য হয়ে ক্ষতিগ্রস্তদের অর্থনৈতিক বিপর্যয়ের মাত্রাকে তীব্রতর করেছে। সে সাথে বাড়ছে মানুষের পঙ্গুত্বের দীর্ঘশ্বাস জেলার সড়ক থেকে শুরু করে অলি-গলি পর্যন্ত।

নারায়ণগঞ্জ জেলায় দূর্ঘটনাপ্রবণ স্থান সমূহের পাশাপাশি রয়েছে সংযোগ সড়কে সতর্ক নির্দেশনার অভাব, প্রশিক্ষণ ও লাইসেন্স বিহীন চালক, অধিকগতি এবং ধারন ক্ষমতার বেশি মালামাল ও যাত্রী পরিবহন, মহসড়কে একই লেনে উচ্চগতি ও স্বল্পগতির যানবাহনের চলাচল, মহাসড়কে অস্পষ্ট ট্রাফিক সাইন ও লেন মার্কিং, জনবহুল স্থানে জেব্রাক্রসিং ও ফুটওভার ব্রীজের অভাব, ফুটপাতের অবৈধ দখল ও গাড়ি পার্কিং। এছাড়া পরিবহন সেক্টরে আচরন বিধির অনুপস্থিতি ও দূর্ঘটনায় আহতদের দ্রুত উদ্ধার ও চিকিংসার জন্য ট্রমা সেন্টারের অভাব। একটি নির্ভরযোগ্য সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে। আর একটি বেসরকারি সংস্থার জরিপেও একই ধরনের তথ্য আরো বিশদভাবে উল্লেখ রয়েছে।

নারায়ণগঞ্জ জেলার মোট ২১ টি প্রধান দূর্ঘটনাপ্রবন স্থান রয়েছে। এ গুলো হচ্ছে: চাষাঢ়া মোড়, পঞ্চবটি, ইসদাইর, শিবুমার্কেট, জালকুড়ি, ভূইঘড়, সাইনবোর্ড পয়েন্ট, সানাড়পাড়, চিটাগাংরোড, আদমজী, কাঁচপুর, তারাব বিশ্বরোড, বরপা, ভুলতা গাউছিয়া পয়েন্ট, গোলাকান্দাইল, আধুরীয়া, সাওঘাট সিএনজি পাম্প স্পট, কাঞ্চন বাজার, লাঙ্গলবন্দ, মোগড়াপাড়া ও মেঘনাঘাট এলাকার স্বল্প দূরত্বের স্থান সমূহ। একটি নির্ভরযোগ্য সূত্র এ তথ্য জানিয়ে বলেছে, চাষাঢ়া, খানপুর, পঞ্চবটি, সাইনবোর্ড পয়েন্ট, চিটাগাংরোড, কাঁচপুর, তারাব বিশ্বরোড, রূপসি, গোলাকান্দাইল ও কাঞ্চন এলাকার সংযোগ সড়কে সতর্ক নির্দেশনার অভাব রয়েছে। জনগনের রাস্তা পারাপারের জন্য কোন জেব্রা ক্রসিং ও ফুটওভার ব্রীজ নেই চাষাঢ়া মোড়, পঞ্চবটি, ইসদাইর, শিবুমার্কেট, সাইনবোর্ড পয়েন্ট, আদমজী, বরপা স্কুলের সামনে, ভুলতা গার্মেন্টসসহ অন্যান্য জনবহুল স্থানে। ট্রাফিক সাইন অস্পষ্ট ও লেন মার্কিং নেই এমন স্থানগুলো হচ্ছে: জালকুড়ি, সাইনবোর্ড পয়েন্ট, ইসদাইর, সানাড়পাড়, চিটাগাংরোড, আদমজী, কাঁচপুর, তারাব বিশ্বরোড, বরপা, ভুলতা-গাউছিয়া পয়েন্ট, গোলাকান্দাইল, আধুরীয়া, সাওঘাট, সিএনজি পয়েন্ট এলাকা ও কাঞ্চন বাজারসহ অন্যান্য ঝুঁকিপূর্ণ পয়েন্টে। সড়ক দূর্ঘটনায় আহতদের দ্রুত উদ্ধার ও চিকিৎসার জন্য আট কিলোমিটারের লিংক রোড (চাষাঢ়া থেকে সাইনবোর্ড পয়েন্ট) ও গুরুত্বপূর্ণ ঢাকা-”ট্টগ্রাম মহাসড়কের পাশাপাশি ঢাকা-সিলেট মহাসড়কে কোন ট্রমা সেন্টার নেই। সড়ক-মহাসড়কে চলাচলকারী সব ধরনের যানবাহনের অধিকাংশ চালকের লাইসেন্স নেই। এরা স্বল্প বয়সী ও অদক্ষ। এছাড়া নারায়ণগঞ্জ নগরীর অধিকাংশ সড়ক, পঞ্চবটি হয়ে ফতুল্লা থেকে পুরাতন নায়ণগঞ্জ- ঢাকা সড়কের শ্যামপুর পর্যন্ত, কাঁচপুর, বরাব স্ট্যান্ড, রূপসী, বরপা, ভুলতা গাউছিয়া, মোগড়াপাড়ায় সড়কের দুই পাশের বিভিন্ন স্থানে রাস্তার পাশে গাড়িপার্কিং ও ফুটপাত অবৈধ দখলের ফলে যানজটের সৃষ্টি হয় এবং দূর্ঘটনা ঘটে। একই সাথে জেলার কোন সড়কে টেকসই যাত্রী ছাউনী না থাকার জনসাধারন জীবনের ঝুঁকি নিয়ে সড়ক ও মহাসড়কের চলাচলকারী গনপরিবহনে উঠানামা করে।

সড়ক দূর্ঘনায় নিহতদের মধ্যে প্রথম সাড়িতে রয়েছে পথচারীরা। আর হেলমেট বিহীন মোটর সাইকেল চালক ও সাইক্লেস্টিক। এরপর ধাক্কা মেরে পালিয়ে যাওয়া ও মুখোমুখি সংঘর্ষে হতাহতের সংখ্যা প্রচুর । সড়ক দূর্ঘটনা সংঘটনের জন্য মূল ও প্রধান দায়ী বাস ও ট্রাক। এরপর অন্যান্য ধীর গতির যানবাহন। এছাড়া পথচারীদের অসতর্কতা ও ঝঁকি নিয়ে সড়ক পারাপারও সড়ক দূঘর্টনার অন্যতম একটি প্রধান কারণ বলে বিশেষজ্ঞমহলে অভিমত। এই মহলের আরো অভিমত হচ্ছে: চালক, পথচারী ও যাত্রীদের আচরন বিধিতে রয়েছে এদের সকলেই যে কোন মূল্যে দ্রুত গন্তব্যে পৌঁছানোর জন্য সচেষ্ট থাকে যা বড় বড় দূর্ঘটনার আরো একটি কারণ। এছাড়া গাড়ির মালিকপক্ষ সব সময় অধিক লাভের জন্য চালকদের চাপের মুখে রেখে একটি নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে নির্দিষ্ট সংখ্যক ট্রিপ সম্পন্ন করার লক্ষ্য মাত্রা দিয়ে, আর ট্রাফিক সিগন্যাল ও যানজটের কারনে যখন মালিকপক্ষের দেওয়া সময়সীমা শেষ হতে চলে তখন চালকগন মরিয়া হয়ে গাড়ি চালায়। তখন তারাও স্বল্প সময়ে বেশি ট্রিপ দিয়ে অধিক আয়ের জন্য বেপোরোয় গতিতে গাড়ি চালায় যা সড়ক দূর্ঘটনার গুরুত্বপূর্ণ কারণ। আর চালকদের একটি অংশে ঝিমুনি ও ঘুম কাতুরে প্রবনতাও সড়ক দূর্ঘটনার মাত্রা যোগ করে। সবমিলিয়ে সড়ক অবকাঠামোর নি¤œমান, ক্রটিপূর্ণ যানবাহন ও পথচারীদের অসতর্কতা মানবসৃষ্ট দূর্যোগ বলে পরিচিত সড়ক দূর্ঘটনার মৌলিক কারণ হিসেবে চিহ্নিত হয়ে আছে।

 

এনগঞ্জ২৪ ডট কমে প্রকাশিত/প্রচারিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট অনুমতি সাপেক্ষে ব্যবহার করা যাবে।

সকল শিরোনাম
 
 

সম্পাদক : এস এম ইকবাল রুমি
বার্তা ও বাণিজ্যিক কাযার্লয় : ইয়াজ উদ্দিন ভবন (৪র্থ তলা), এ.সি ধর রোড, কালীর বাজার, নারায়ণগঞ্জ- ১৪০০।

নিউজ রুমঃ ০১৯৮১৬০৯২৫১, ০১৭৭৭৪১২৭৪৪ ই-মেইলঃ nganj24editor@gmail.com